Breaking News
Home / আন্তর্জাতিক / ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ পশ্চিমবঙ্গে

ত্রাণ নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ পশ্চিমবঙ্গে

ত্রাণ বণ্টন নিয়ে দুর্নীতি ঘিরে সরগরম ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ৷ পশ্চিমবঙ্গের রাজনীতিতে সবচেয়ে বেশি যে বিষয়টি নিয়ে আলোচনা হয়, তা সন্দেহাতীত ভাবে দুর্নীতি ৷ সারদা, নারদ, কাটমানি হয়ে এবার দুর্নীতির অভিযোগ ত্রাণ বণ্টন নিয়ে৷অভিযোগের নিশানায় রাজ্যের শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেস৷ ঘূর্ণিঝড় আমফান পশ্চিমবঙ্গের একাধিক জেলাকে তছনছ করে দিয়েছে৷ হাজার হাজার বাড়ি ভেঙে পড়েছে ৷  প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের বাদ দিয়া নিজেদের লোকদের মধ্যে ত্রান দেয়ার অভিযোগ উঠেছে ৷

২৪ পরগণা, হাওড়া, হুগলি-সহ বিভিন্ন জেলায় পঞ্চায়েত স্তরে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের যে তালিকা তৈরি হয়েছে, তা নিয়েই মূলত অভিযোগ৷ এই তালিকায় অনেকক্ষেত্রে শাসকদলের পরিবারের সদস্যদের নাম ঢুকিয়ে দেয়া হয়েছে, বাদ পড়েছে সম্বলহীন মানুষ৷ সংখ্যায় কম হলেও সিপিএম ও বিজেপি পরিচালিত পঞ্চায়েতের বিরুদ্ধেও এ ধরনের অভিযোগ উঠেছে৷ ত্রাণের টাকা, ত্রিপল কিংবা খাদ্যসামগ্রী না পেয়ে ক্ষিপ্ত জনতা বিক্ষোভ দেখাচ্ছে৷

এই অসন্তোষ মোকাবিলায় কঠোর পদক্ষেপ নিয়েছেন রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তিনি বলেছেন, দলমত নির্বিশেষে ক্ষতিগ্রস্ত মানুষদের ত্রাণ দিতে হবে৷ এ নিয়ে কোনো দুর্নীতি বরদাস্ত করা হবে না৷ শাসক দলের নেতারাও যদি দুর্নীতি করেন, তাহলে কড়া ব্যবস্থা নেয়া হবে৷ মুখ্যমন্ত্রীর এই ঘোষণার পর ব্যাপক ভাবে শোকজ করা হচ্ছে গ্রাম পঞ্চায়েত, পঞ্চায়েত সমিতির স্তরের তৃণমূল নেতাদের৷ তদন্ত করা হচ্ছে দলীয় পর্যায়ে৷ একাধিক জায়গায় অভিযুক্ত তৃণমূল নেতা বেআইনিভাবে নেওয়া ত্রাণের টাকা ফিরিয়ে দিয়েছেন৷

বিরোধী বাম, বিজেপি, কংগ্রেস লকডাউনের মধ্যে দুর্নীতির বিরুদ্ধে আন্দোলন শুরু করেছে৷ বিজেপি নেতা সায়ন্তন বসুর বক্তব্য, ‘‘তৃণমূলের আপাদমস্তক দুর্নীতিতে ভরা৷ যারা উপরতলার নেতা তারা কীভাবে নিচুতলার দুর্নীতি নিয়ন্ত্রণ করবেন? তাদের দুর্নীতির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার নৈতিক অধিকার হারিয়ে গিয়েছে৷” ত্রাণ দুর্নীতি নিয়ে সবচেয়ে বেশি অভিযোগ এসেছে উত্তর ২৪ পরগণা থেকে৷ এই জেলার সিপিএম বিধায়ক তন্ময় ভট্টাচার্য বলেন, ‘‘মুখ্যমন্ত্রী একটি পঞ্চায়েতের নাম বলুন যেখানে ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা তৈরি নিয়ে অভিযোগ ওঠেনি৷ নীচের তলায় তৃণমূল ও বিজেপি হাত ধরাধরি করে দুর্নীতি করছে৷ দুই দলের সমর্থকদের নাম থাকছে তালিকায়৷ এখন মানুষের প্রতিরোধের মুখে পড়ে মুখ্যমন্ত্রী ড্যামেজ কন্ট্রোল করতে কড়া অবস্থান নেওয়ার চেষ্টা করছেন৷”

তৃণমূল নেতা ওমপ্রকাশ মিশ্রের মতে ৷ তিনি বলেন, ‘‘কোথাও দুর্নীতির অভিযোগ উঠলে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে৷ বিরোধীদের বৈঠকে ডেকে মুখ্যমন্ত্রী প্রকৃত ক্ষতিগ্রস্তদের তালিকা চেয়েছেন৷ তৃণমূল অস্বীকার করছে না দুর্নীতি হয়েছে৷ কিন্তু তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে৷ এতে সরকারের স্বচ্ছতা প্রমাণিত হয়৷ আগামী বিধানসভা নির্বাচনে এর ইতিবাচক ফল পাবে তৃণমূল৷”

 

 

Check Also

বিশ্বের প্রথম করোনা ভ্যাক্সিন, ঘোষণা রাশিয়ার

মস্কো: ভ্যাক্সিন এলেই মিলবে মুক্তি। এমন আশায় বসে আছেন গোটা বিশ্বের মানুষ। এরই মধ্যে সুখবর …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *